পেনিসের মাথায় গুটি গুটি ও পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি চিকিৎসা

আজকের এই আর্টিকেলে পেনিসের মাথায় গুটি গুটি এবং পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি চিকিৎসা সম্পর্কে আলোচনা করব। অনেকেরই দেখা যায় পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি এবং গুটিগুটি হয় কিন্তু লজ্জায় কাউকে বলতে পারেনা অনেকেই এটি স্বাভাবিক ভেবে এড়িয়ে চলেন কিন্তু একদমই ঠিক নয়। তাই আজকের এই পোস্টে আমরা পেনিসের মাথায় গুটি গুটি এবং পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি চিকিৎসা সম্পর্কে আপনাদের জানাবো।
পেনিসের মাথায় গুটি গুটি এবং পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি অনেক কারণে হতে পারে যেমন ছত্রাক সংক্রমণ, সিফিলিস, হারপিস এবং একজিমা। তাই কিভাবে পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি চিকিৎসা নিবেন সে সম্পর্কে আজকের এই আর্টিকেলে কিছু ঘরোয়া উপায় আপনাদের জানাবো যেগুলো অনুসরণ করলে খুব সহজেই পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি, চুলকানি এছাড়াও পেনিসের মাথায় ব্যাথা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।
পোস্ট সূচিপত্রঃ 

পেনিসের মাথায় ব্যাথা

পেনিসের মাথায় ব্যাথা বিভিন্ন কারণে হতে পারে যার ভিতর রয়েছে প্রিয়াপিজম, বেলানাইটিস, যৌনবাহী সংক্রমণ, মুত্রনালীর সংক্রামন, আঘাত জনিত কারণে এছাড়াও প্যারাফিমোসিস এবং ফিমোসিস কারণেও পেনিসের মাথায় ব্যাথা হতে পারে। এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারি পেনিসের মাথায় ব্যাথা কিভাবে দূর করা যায় অর্থাৎ ব্যাথা থেকে মুক্তি পাওয়া যায় আসুন জেনে নেওয়া যাক। 
  • কয়েকদিন লুঙ্গি বা নরম কাপড় পরিধান করুন। আন্ডারওয়ার এবং জিমস প্যান্ট পড়বেন না। 
  • কোন আঘাতের কারণে যদি ব্যথা হয় সে ক্ষেত্রে পেনিসের মাথায় স্থানটিতে বরফ লাগান ১০ থেকে ২০ মিনিট পর্যন্ত দেখবেন ব্যথাটা কিছুটা কমে গেছে।
  • ব্যথাটি যদি না যায় সে ক্ষেত্রে একজন ডাক্তার পরামর্শ নিতে হবে এবং এন্টিবায়োটিক ওষুধ অথবা ইনজেকশন দিলে ব্যথাটা দূর হয়ে যাবে।
  • বেলানাইটিস কারণে যদি ব্যথা হয়ে থাকে সে ক্ষেত্রে এন্টিবায়োটিক ওষুধ গ্রহণ করলে ব্যথা সেরে যায়।
  • ব্যথা করা স্থানটি পরিষ্কার এবং শুষ্ক রাখুন।
  • টপিকাল মলম এবং প্রেসক্রিপশন অ্যান্টিবায়োটিক ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যবহার করতে পারেন যার ফলে ব্যথাটা চলে যায়।
  • আঘাতের উপর নির্ভর করে আঘাতটি যদি মারাত্মক হয় সেক্ষেত্রে অস্ত্রপ্রচারের প্রয়োজন হতে পারে।

পেনিসের মাথায় গুটি গুটি

পেনিসের মাথায় গুটি গুটি এটা বিভিন্ন ইনফেকশনের কারণে হতে পারে এছাড়াও সব সময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন না থাকা এবং পরিষ্কার কাপড় পরিধান না করার কারণে হতে পারে। এখন জেনে নেওয়া যাক আপনি কিভাবে পেনিসের মাথায় গুটি গুটি থেকে মুক্তি পেতে পারেন। পেনিসের মাথায় অর্থাৎ যে স্থানে আপনার গুটি গুটি হয়েছে সেখানে ক্রিম পেভিসন নামক একটি ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন এছাড়াও অ্যালাট্রল ট্যাবলেট খেলে গুটি গুটি পেনিসের মাথায় সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। 


ক্রিম এবং ওষুধ ব্যবহার করার পাশাপাশি আপনি নারিকেল তেল ব্যবহার করবেন এবং নরম কাপড় পরবেন।এবং যদি পেনিসের মাথায় গুটি গুটি সমস্যাটি বেশি জটিলতা সৃষ্টি করে তাহলে একজন চর্ম এবং যৌন চিকিৎসকের পরামর্শ নিবেন এবং চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ সেবন করবেন।

পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি চিকিৎসা

আমাদের সমাজে বেশিরভাগ মানুষেরই গোপনাঙ্গে সমস্যা রয়েছে কিন্তু কাউকে লজ্জায় কেউ বলতে পারে না সে ক্ষেত্রে ইন্টারনেটে সার্চ দিয়ে আমাদের এই পোস্টটি পেয়েছেন এই পোস্টটি পড়লে পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি চিকিৎসা সম্পর্কে জানতে পারবেন এবং পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি থেকে চিরতরে মুক্তি পেতে পারেন।

অনেকেরই মনে প্রশ্ন জাগতে পারে পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি হওয়ার কারণ এবং কেন হয়? ডারমাটাইটিস, যৌনবাহী সংক্রমন, জক চুলকানি, বেলানাইটিস, ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কারণেও হতে পারে এছাড়াও হস্তমৈথুন কারণে হতে পারে। আসুন তাহলে এবার জেনে নেওয়া যাক পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি চিকিৎসা অর্থাৎ পেনিসের ফুসকুড়ি থেকে মুক্তি পাওয়ার উপায়।
  • পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি স্থানটি সবসময় পরিষ্কার রাখুন।
  • ওভার-দ্য-কাউন্টার ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন।
  • নরম কাপড় পরিধান করুন।
  • সুগন্ধি এবং রং মুক্ত লন্ডি ডিটারজেন্ট ব্যবহার করুন।
  • বেশিক্ষণ ঘামযুক্ত পোশাক পড়া থেকে এড়িয়ে চলুন।
  • হস্তমৈথুন থেকে এড়িয়ে চলুন।
  • ভেজালমুক্ত সাবান দিয়ে গোসল করবেন না।
  • প্রতিনিয়ত গোসল করবেন।
  • খারাপ মেলামেশা পরকিয়া থেকে দূরে থাকবেন।
পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি যদি খুবই বেদনাদায়ক হয়ে ওঠে এবং সবুজ বাহ হলুদ বর্ণের আকার ধারণ করে এবং লাল দাগ দেখা যায় সে ক্ষেত্রে দ্রুত একজন ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন। আশা করি বুঝতে পেরেছেন পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি চিকিৎসা সম্পর্কে।

পেনিসের মাথায় চুলকানি

পেনিসের মাথায় চুলকানি অন্যতম কারণ হচ্ছে বেলানাইটিস। বেলানাইটিস হলে লিঙ্গর ত্বক লাল হয়ে যায় ফুলে যায় এবং চুলকায় এছাড়া ব্যথা হতে পারে। বেলানাইটিস সাধারণত বিভিন্ন অণুজীবের বৃদ্ধির কারণে , এলার্জি, সরিয়াসিস, একজিমা, নেপি ফুসকুড়ি এবং ওষুধের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার কারণেও পেনিসের মাথায় চুলকানি হতে পারে। 

পরিষ্কার কাপড় বা প্যান্ট না পারার কারণে ঘাম জমে আপনার পেনিসের চুলকানি হতে পারে। এবং সহবাসের পর ভালোভাবে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন না থাকা কারণেও হতে পারে।

এছাড়াও অনেকে আছেন যারা ধুলোবালি মজার ভেতরে কাজ করেন এবং বেশ কয়েকদিন পর পর গোসল করেন প্রতিনিয়ত গোসল করেন না সে ক্ষেত্রেও পেনিসের মাথায় চুলকানি হতে পারে। চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক কিভাবে পেনিসের মাথায় চুলকানি ভালো করা যায় এবংচুলকানি থেকে মুক্তির উপায় কি কি।
  • বাজারে কিনতে পাওয়া কোন মেডিসিন ব্যবহার করবেন না।
  • ঘামযুক্ত কাপড় বেশিক্ষণ পড়ে থাকবেন না।
  • পরিষ্কার কাপড় পরিধান করুন।
  • সহবাসের সময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকুন।
  • লিঙ্গে হাত দেয়ার সময় হাতটি ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন।
  • পেনিসের যত্নদিন এবং পরিষ্কার রাখুন।
  • এলার্জির কারণেও পেনিসের মাথায় চুলকানি হয় সেক্ষেত্রে এলার্জি খাবার এড়িয়ে চলুন।
অপরের উল্লেখিত ঘরে উপায় গুলি অনুসরণ করেও যদি আপনার পেনিসের মাথায় চুলকানি ভালো না হয় সে ক্ষেত্রে একজন ডাক্তারের পরামর্শ নিন না তো এভাবে অবহেলা করে গেলে আপনার এই চুলকানি থেকে বড় ধরনের কিছু হয়ে যেতে পারে।

পেনিসের মাথায় ক্ষত

অনেকেরই পেনিসের মাথায় ক্ষত বা কাটা দাগ দেখা যায় কিন্তু কি করবে কিছু বুঝতে পারে না তাই কি আর্টিকেলের অংশে পেনিসের ক্ষত কেন হয় এবং করণীয় কি সে সম্পর্কে আলোচনা করব। পেনিসের মাথায় ক্ষত অনেক কারণে হয়ে থাকে তার ভিতরে একটি সাধারণ বিষয় হচ্ছে যৌনাঙ্গে আঁচিল।  হিউম্যান প্যাপিলোমা ভাইরাস দ্বারা সৃষ্টি আঁচিলগুলো ক্ষত আকারে দেখা যায়। 


তাই আপনাকে আগে প্রথমে ক্ষত স্থানটি ভালোভাবে দেখে চিহ্নিত করতে হবে ক্ষত ধরন। এছাড়াও বিভিন্ন ইনফেকশনের কারণে ক্ষত সৃষ্টি হয়ে থাকে। তাই পেনিসের মাথায় ক্ষত মুক্তি পেতে কোন ঘরোয়া উপায় নেই তাই একজন ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে চিকিৎসা গ্রহণ করবেন কোন প্রকার সময় নষ্ট করবেন না। কারণ এই সব ক্ষত ক্যান্সারের কারণেও হতে পারে।

শেষ কথা

এই আর্টিকালে আপনাদের সাথে আলোচনা করেছি কয়েকটি বিষয় নিয়ে তার ভিতরে হচ্ছে পেনিসের মাথায় গুটি গুটি এবং পেনিসের মাথায় ফুসকুড়ি চিকিৎসা সম্পর্কে। আশা করি আপনি সবকিছু বুঝতে পেরেছেন এবং উপকৃত হয়েছেন। আরেকটা কথা পেনিসের মাথায় ক্ষত ক্ষেত্রে আপনি তাড়াতাড়ি একজন ডাক্তারের শরণাপন্ন হবেন। আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্টে আমাদেরকে জানাতে পারেন। ধন্যবাদ

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

Edu 360 BD নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url