সৌদি আরবে কোন কাজে বেতন বেশি ও সর্বনিম্ন বেতন কত

আজকের এই আর্টিকেলে সৌদি আরবে কোন কাজে বেতন বেশি এবং সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি সে সম্পর্কে বিস্তারিত করব। দেশের বাইরে যেতে চান এমন অনেক ভাইয়েরা সৌদি আরবকে বেছে নেই প্রবাস জীবনে যাওয়ার জন্য। আপনিও যদি তাদের মধ্যে একজন হয়ে থাকেন তাহলে সৌদি আরবে কোন কাজে বেতন বেশি ২০২৪ সালে এই বিষয়ে জেনে রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
সৌদি আরবে কোন কাজে বেতন বেশি - সৌদি আরবে সর্বনিম্ন বেতন কত
প্রত্যেকটা প্রবাসীরাই অল্প কাজ করার বিনিময়ে বেশি অর্থ উপার্জন করতে চাই আর সেই জন্যই বাংলাদেশ থেকে যারা সৌদি আরবে কাজের উদ্দেশ্যে যেতে চাই তারা অনেকেই জানতে চেয়ে থাকে সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন বেশি। আপনি যদি এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ মনোযোগ সহকারে পড়েন তাহলে সৌদি আরবে কোন কাজে বেতন বেশি ও কোন কাজের চাহিদা বেশি বিস্তারিত জানতে পারবেন। 

সৌদি আরবে কোন কাজে বেতন বেশি

বন্ধুরা সৌদি আরবের কোন কাজে সবচাইতে বেতন বেশি বা সৌদি আরবের সর্বনিম্ন বেতন কত অনেকেই জানতে চেয়ে থাকেন। আজকের আর্টিকেলে আপনাদেরকে তথ্য দিব সৌদি আরবে যদি আপনি আসতে চান তাহলে কোন কাজে সবচাইতে বেশি বেতন পাবেন অথবা সৌদি আরবের পরিস্থিতিতে বর্তমানে আসা ঠিক হবে কিনা বা সৌদি আরবের সর্বনিম্ন বেতন কত।


আপনি যে সৌদি আরবে আসবেন আপনি কোন কাজে আসলে সবচাইতে বেশি বেতন পাবেন তো এই প্রশ্নের উত্তরটি বলার আগে আপনাদেরকে আগে বলবো যে সৌদি আরবের সর্বনিম্ন বেতন সংখ্যা কত। আসলে সৌদি আরবে সর্বনিম্ন বেতন বলতে কোন বেতন নেই। 

আপনি ১০০০ রিয়াল ও বেতন পেতে পারেন আপনি ৬০০ রিয়ালও বেতন পেতে পারেন এক কথায় আপনার কাজের উপর নির্ভর করবে আপনার বেতন কত হবে। এখন কথা হচ্ছে আপনারা যারা বর্তমানে সৌদি আরবে আসতে চাচ্ছেন তারা কোন কাজে আসবেন বা কোন কাজে আপনাদের সবচাইতে বেশি পরিমাণে বেতন আপনারা পেতে পারেন।

এখন এটা নির্ভর করছে যে আপনি কি ফ্রি ভিসাতে আসতেছেন নাকি আপনি মালিকানা ভিসাতে আসতেছেন আপনি কোন ড্রমেস্টিক বেশি ভিসাতে আসতে চাচ্ছেন অথবা আপনি কি কোন কোম্পানি ভিসাতে আসতে চাচ্ছেন এখন এই যে বিভিন্ন ক্যাটাগরির রয়েছে ভিসার এই বিভিন্ন ক্যাটাগরি অনুযায়ী কিন্তু আপনার বেতন কত হতে পারে বা কোন কাজে আপনি সবচেয়ে বেশি বেতন পাবেন সেটা নির্ভর করবে।

তাও আপনাদের সুবিধার্থে সৌদি আরবের বিখ্যাত শাঁস আল বালাদ কোম্পানির কোন কাজে কত বেতন এবং ডিউটি কতক্ষণ সেটার তালিকা নিচে দেয়া হলোঃ-

পেশা

  কাজের বেতন

  কাজের সময়

ইনডোর ক্লিয়ার

৬০০ রিয়েল

০৮ ঘন্টা

টেকনিশিয়াল হেলপার

৯০০ রিয়েল

০৮ ঘন্টা

এসি টেকনিশিয়াল

১৫০০ রিয়েল

০৮ ঘন্টা

প্লাম্বার

১৪০০ রিয়েল

০৮ ঘন্টা

পেন্টিং টেকনিশিয়াল

১৩০০ রিয়েল

০৮ ঘন্টা

ফিনিশিং কার্পেন্টার

১৩০০ রিয়েল

০৮ ঘন্টা

ম্যাসন

১৪০০ রিয়েল

০৮ ঘন্টা

পেস্ট কন্ট্রোল টেকনিশিয়াল

১০০০ রিয়েল

০৮ ঘন্টা

সাইট সুপারভাইজার

১৭০০ রিয়েল

০৮ ঘন্টা

সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি ও সর্বনিম্ন বেতন কত

বর্তমানে কিন্তু সৌদি আরবে কাজের প্রচন্ড অভাব কাজে নেই বললেই চলে তারপরেও কিন্তু সৌদি আরবে বাংলাদেশ থেকে ইন্ডিয়া থেকে পাকিস্তান থেকে অনেক প্রবাসী ভাই কিন্তু নতুন করে প্রবেশ করছে। আমাদের যে সকল বাংলাদেশী ভাইয়েরা রয়েছি তারা অনেকে প্রশ্ন করে থাকে বর্তমানে সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা সবচাইতে বেশি। 

তো আজকের আর্টিকেলে আপনাদেরকে ৬টি কাজের কথা বলব এই ছয়টি কাজের চাহিদা কিন্তু বর্তমানে সৌদি আরবে অনেক বেশি। বর্তমানে যেহেতু সৌদি আরবের পরিস্থিতি খারাপ তাই প্রত্যেককে আমি অনুরোধ করবো যারাই সৌদি আরবের নতুন ভিসাই আসেন না কেন তারা অবশ্যই হাতে-কলমে কাজ শিখে আসবেন। 


আপনারা যে কাজের ভিসাই আসবেন সেই কাজটি অবশ্যই বাংলাদেশ থেকে শিখে আসবেন যে কোন একটি কাজ শিখে আসলেই কিন্তু আপনারা এখানে একদিন না একদিন স্টাবলিশ করতে পারবেন যদি আপনারা কাজও না জানেন যদি আপনারা ভালো করে ভাষাও না জানেন তাহলে কিন্তু আপনারা প্রবাসে এসে অনেক বড় বিপদে পড়বেন। তো চলুন জেনে নেওয়া যাক সৌদি আরবে কোন কোন কাজগুলোর চাহিদা বেশি।
  • অটো মোবাইল বা ওয়ার্কশপের কাজ।
  • ইলেকট্রিক বা কারেন্টের কাজ।
  • পাইপ ফিটার।
  • রাজমিস্ত্রি বা নির্মাণ কাজ।
  • রড বিস্ত্রির কাজ।
  • কফি শপের কাজ।

সৌদি আরবের কোম্পানি ভিসা বেতন কত

বর্তমানে সৌদি আরবের অনেক ধরনের ভিসা সহ কোম্পানি ভিসা চালু আছে আমাদের বাংলাদেশ থেকে অনেকেই কোম্পানি বিষয়ে প্রবাসী গেছে আবার অনেকেই যেতে চাচ্ছে। সৌদি আরবে বেশিরভাগ বাংলাদেশী মানুষ কোম্পানি ভিসায় গিয়ে থাকে। যারা সৌদি আরবে কোম্পানি ভিসায় যেতে চাচ্ছেন কিন্তু তাদের মধ্যে বেশিরভাগ মানুষই সৌদি আরব কোম্পানির বেতন কত সে বিষয়ে ধারণা নেই।

এজন্য তারা সৌদি আরবের কোম্পানি হিসেবে বেতন কত তা জানার জন্য অনলাইনে অনুসন্ধান করে থাকে তাই আজকের এই পোস্টে সবার সুবিধার্থে সৌদি আরবে কোম্পানি ভিসা বেতন কত সে বিষয়ে আপনাদের জানাবো। সৌদি আরবে বিভিন্ন কোম্পানি রয়েছে এবং এক একটি কোম্পানি একেক রকম বেতন দিয়ে থাকে এক কথায় আপনার অভিজ্ঞতা অনুযায়ী বেতন নির্ধারিত হয়ে থাকে।

কনস্ট্রাকশন কাজে ২ হাজার থেকে ৪ হাজার রিয়াল পর্যন্ত বেতন হয়ে থাকে যা বাংলাদেশী টাকায় ৫৮ হাজার টাকা থেকে ১ লক্ষ ১৬ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন দেওয়া হয়ে থাকে। এবং যারা নতুন সৌদি আরবে কোম্পানিতে এসেছেন তারা সর্বনিম্ন ৩০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন পেতে পারেন।

সৌদি আরব ক্লিনার ভিসা বেতন কত

যারা সৌদি আরবে ক্লিনার ভিসায় যাওয়া চিন্তাভাবনা করছেন তারা অনেকেই জানতে চেয়ে থাকেন সৌদি আরবে ক্লিনার ভিসার বেতন কত। সৌদি আরবে ক্লিনার ভিসা অনেক ধরনের হয়ে থাকে যেমন ধরেন রাস্তা ক্লিনার, হোটেল ক্লিনার, অফিস আদালত ক্লিনার ইত্যাদি। সৌদি আরবে ক্লিনার ভিসার বেতন ৮০০ রিয়াল থেকে ১০০০ হাজার রিয়াল পর্যন্ত হয়ে থাকে।

সৌদি আরবে কাজের বেতন কত

সৌদি আরবে অনেক কাজ রয়েছে যেমনঃ রেস্টুরেন্ট, ড্রাইভিং, ক্লিনার, কনস্ট্রাকশন, ইলেকট্রিশিয়ান, অটো মোবাইল ইত্যাদি সহ বিভিন্ন কাজ করার সুযোগ-সুবিধা রয়েছে। তবে সব কাজের বেতন একরকম নয় কিছু কাজ রয়েছে যেগুলোতে বেতর দেয়া হয়ে থাকে সর্বনিম্ন ১ লক্ষ টাকা এবং কিছু কাজ রয়েছে যেগুলোতে সর্বনিম্ন বেতন দেয়া হয়ে থাকে ৩০ থেকে ৫০ হাজার টাকার মত।

সৌদি আরবের হোটেল ভিসা বেতন কত

আপনি যদি সৌদি আরবে হোটেল ক্লিনার ভিসায় আসেন তাহলে আপনার বেতন হবে সম্ভবত ১০০০ থেকে ১৫০০ রিয়ালের ভিতরে আর যদি আপনি সৌদি আরবে হোটেলে বাবুর্চি ভিসা এ আসেন তাহলে হয়তো বা আপনার বেতন ১৪০০ রিয়াল থেকে শুরু করে ১৮০০ - ২০০০ রিয়াল পর্যন্ত হতে পারে।

সৌদি আরবে ইলেকট্রিক কাজের বেতন কত

সৌদি আরবে যারা ইলেকট্রিক কাজ করতে আসতে চান তারা অনেকেই জানতে চেয়ে থাকেন বর্তমানে সৌদি আরবে ইলেকট্রিক কাজের বেতন কত। সৌদি আরবে ইলেকট্রিক অনেক ধরনের কাজ রয়েছে যেমনঃ এসি, ফ্যান, কারেন্টের তার ওয়ালিং করা ইত্যাদি। আপনার যদি এসব কাজের উপর অভিজ্ঞতা থেকে থাকে তাহলে আপনার বেতন হবে ১৬০০ রিয়াল থেকে ২০০০ রিয়াল পর্যন্ত।
আর যদি আপনার ইলেকট্রিক কাজের ওপর কোন অভিজ্ঞতা না থাকে তাহলে আপনি সেখানে হেলপার হিসেবে কাজ করতে পারেন আর ইলেকট্রিক হেলপার এর বেতন ১২০০ রিয়াল থেকে ১৫০০ রিয়াল পর্যন্ত হয়ে থাকে।

সৌদি আরবে ড্রাইভিং বেতন কত

আপনি যদি সৌদি আরবে বিভিন্ন কোম্পানিতে ড্রাইভিং হিসেবে কাজ করেন তাহলে আপনার বেতন হবে ১৪০০ রিয়াল থেকে ১৮০০ রিয়াল পর্যন্ত। আর যদি আপনি হাউস ড্রাইভিং করেন অর্থাৎ কোন বাড়িতে প্রাইভেট ড্রাইভার হিসেবে কাজ করেন তাহলে আপনার বেতন হবে ১২০০ রিয়াল থেকে ১৮০০ রিয়াল পর্যন্ত।

সৌদি আরবে কফি শপে বেতন কত

যারা নতুন সৌদি আরবে কফি শপে কাজের জন্য আসতে চাচ্ছেন তারা অনেকেই জানতে চেয়ে থাকেন সৌদি আরবে কফি শপে বেতন কত। আপনি যখন সৌদি আরবে কোন কফি শপে নতুন কাজ করবেন তখন আপনার বেতন হবে ১৫০০ রিয়াল এর মত এবং আপনি যদি ভালো কফি বানাতে পারেন ভালো অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে আপনার বেতন হবে ২০০০ রিয়াল এর মত।

শেষ কথা

প্রিয় পাঠক আজকের এই আর্টিকেলে সৌদি আরবে কোন কাজে বেতন বেশি এবং সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি আশা করি আপনি সম্পূর্ণ পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়েছেন। আপনি সৌদি আরবে যে কাজেই আসেন না কেন প্রথমে ভালোভাবে যাচাই বাছাই করে আসবেন কারণ বর্তমানে দালালদের চক্রে অনেকেই প্রতারিত হচ্ছে।

এবং আপনি সৌদি আরবে যেই কাজেই আসুন না কেন ভালোভাবে বাংলাদেশ থেকে কাজ শিখে তারপর সৌদি আরবে আসবেন আর যদি কাজ না জেনে চলে আসেন কোন অভিজ্ঞতা ছাড়াই তাহলে কোন কাজ পাবেন না হতাশায় ভুগবেন। আপনার যদি কোন মতামত অথবা প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে নিচে কমেন্ট করে আমাদেরকে জানাতে পারেন ধন্যবাদ।


এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

Edu 360 BD নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url