সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার আবেদন শুরু ২০২৪ আপডেট

বিশ্বের উন্নত দেশগুলোর মধ্যে অস্ট্রেলিয়া একটি যার কারণে প্রতিবছরই হাজার হাজার মানুষ কাজের উদ্দেশ্যে অস্ট্রেলিয়ায় পাড়ি জমায়। সরকারিভাবে কিংবা বিভিন্ন এজেন্সির মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়া যাওয়া যায় তবে সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া গেলে খরচ অনেক কম হয় তাই অনেকেই জানতে চেয়ে থাকেন সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার আবেদন শুরু কবে। আপনিও যদি তাদের মধ্যে একজন হয়ে থাকেন তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্য।
সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার আবেদন শুরু ২০২৪
আজকের এই আর্টিকেলে সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার আবেদন শুরু কবে এবং সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার উপায় এছাড়া অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। আপনি যদি সরকারি ভাবে অস্ট্রেলিয়ায় যেতে চান তাহলে এই আর্টিকেল পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন কারণ এই পোস্টটি সম্পন্ন করলে আপনি সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার মাধ্যম জানতে পারবেন। 

সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার আবেদন শুরু ২০২৪

যে কোনো উন্নত দেশে যাওয়া প্রত্যেক বাংলাদেশির স্বপ্ন, ঠিক যেমন অনেক বাংলাদেশি অস্ট্রেলিয়া যেতে চায়। কারণ দেশটি উন্নত, বিভিন্ন কাজের সুযোগ রয়েছে, যে কারণে অনেকেই অস্ট্রেলিয়ায় কাজ করতে চান। কিন্তু অনেকেই জানেন না কিভাবে অস্ট্রেলিয়া যেতে আবেদন করতে হয়। আজকাল, অস্ট্রেলিয়ার ভিসা পাওয়ার সময় বেশিরভাগ লোক প্রতারণার শিকার হয়। 


কারণ বর্তমানে সরকারি ভিসা প্রদানের নামে অনেক প্রতিষ্ঠান অর্থ সংগ্রহ করছে তাই প্রতারিত হতে না চাইলে অফিসিয়াল বিজ্ঞপ্তি ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন। সমস্ত অফিসিয়াল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বোয়েসলের ওয়েবসাইটে পোস্ট করা হয়ে থাকে, তাই আপনি যদি সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার আবেদন শুরু কবে তা জানতে চান তাহলে https://boesl.gov.bd/ এই ওয়েবসাইটে দেখুন।

এবং বর্তমানে, অস্ট্রেলিয়া সরকার বাংলাদেশ থেকে অস্ট্রেলিয়ায় যাওয়ার জন্য ৬টি পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এই পদগুলির জন্য সরকার ভিসা প্রদান করবে। কোন কোন পদে ভিসা নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় যেতে পারবেন সেই পদ গুলোর নাম নিচে উল্লেখ করা হলোঃ-
  • রেস্টুরেন্ট সেফ
  • পাইপ ফিটার
  • নার্স
  • বয়লার মেকার
  • ওয়েল্ডার
  • স্টোন মেসন
পদগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এবং আবেদন জমা দেওয়ার সময় ও অন্যান্য তথ্যের জন্য বোয়েসেলের ওয়েবসাইটে গিয়ে দেখে নিতে পারেন।

সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়ায় বিশাল কর্মী নিয়োগ

অস্ট্রেলিয়া অভিবাসন প্রত্যাশীদের জন্য রয়েছে দান সুখবর এখন থেকে আপনারা শুধুমাত্র ৪০ হাজার টাকা খরচ করে কোন ধরনের কোন ielts এডুকেশন কোয়ালিফিকেশন কিংবা দালাল চক্রের দ্বারস্থ না হয়ে অস্ট্রেলিয়া শিফ্ট হতে পারবেন। রিসেন্টলি আমরা ইন্টারনেট থেকে জানতে পেরেছি অস্ট্রেলিয়া কর্মী সংকট মোকাবেলায় ২০২০ সালের মার্চে যে প্রকল্পটি নিয়েছিলেন যেটি করোনার কারণে স্থগিত হয়ে গিয়েছিল সেই প্রকল্প তারা আগস্টের ২ তারিখে অর্থাৎ ২৩ সালে আবার পনেরো স্থাপন করেন। 

এবং ২০২৪ সালেও এই প্রকল্পে সারা পৃথিবী থেকে মোট প্রায় ৪ লক্ষ মাইগ্রেট ওয়ার্কার নিয়োগ দিবেন তাদের দেশে বিভিন্ন ধরনের জব সেকশনে। এখন কথা হচ্ছে আপনারা কিভাবে এই মাইগ্রেট ওয়ার্কারদের একজন হয়ে সরাসরি অস্ট্রেলিয়া যাবেন মাত্র ৪০ হাজার টাকা খরচ করে। আপনাকে বিভিন্ন জব ক্যাটাগরিতে আবেদন করার জন্য https://www.glassdoor.com/ এই ওয়েবসাইটে গিয়ে আবেদন করতে হবে। 

সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার উপায়

আমাদের দেশের মানুষ সবাই জানতে চাই যে কিভাবে অস্ট্রেলিয়া আসা যাবে বা অস্ট্রেলিয়াতে আসার কি কি ওয়ে আছে কিভাবে আমরা খুব সহজেই অস্ট্রেলিয়া যেতে পারব। অস্ট্রেলিয়া আসার সবচেয়ে সহজ রাস্তা কোনটা এটা একটা কমন প্রশ্ন। আপনারা সবাই জানেন যে অস্ট্রেলিয়া যদি আপনারা পড়াশোনা করতে আসতে চান তাহলে আপনাদের একাডেমি কোয়ালিফিকেশনগুলো খুব ভালো থাকতে হবে

এবং আপনাদের ielts স্কোর ভালো থাকতে হবে তারপরে আপনারা যদি অস্ট্রেলিয়া ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে আসতে চান তাহলে আপনাদের কাজের ওপর ভালো অভিজ্ঞতা থাকা লাগবে ইত্যাদি এরকম বিভিন্ন যোগ্যতা লাগে যার কারণে অনেকেই যোগ্যতা গুলো ফুলফিল করতে পারেনা যার কারণে সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া আসতে পারে না।


শুধুমাত্র একটি উপায় রয়েছে যার মাধ্যমে আপনারা খুব সহজেই সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া আসতে পারবেন সেটা হচ্ছে ভিজিট ভিসায়। আপনারা যদি ভিজিট ভিসা নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় আসেন তাহলে কোন এডুকেশন কোয়ালিফিকেশন অথবা অন্য কোন যোগ্যতার প্রয়োজন হবে না। 

আরেকটি মজার বিষয় হলো আপনাকে কোন ধরনের ইন্টারভিউ দেওয়া লাগবে না। আর এই অস্ট্রেলিয়া ভিজিট ভিসায় নেওয়ার পর আপনি চাইলে যে কোন কাজ করতে পারবেন এবং অস্ট্রেলিয়াতে স্থায়ী ভাবে বসবাস করতে পারবেন।

অস্ট্রেলিয়া কৃষি কাজের ভিসা ২০২৪

প্রতিবছর অস্ট্রেলিয়ান সরকার বাংলাদেশ ও অন্যান্য দেশ থেকে বিভিন্ন কোম্পানিতে কৃষি কাজের জন্য কর্মী নিয়োগ করে। আর এইসব বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে হাজার হাজার বেকার বাংলাদেশী কর্মী অল্প টাকায় সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়ার কৃষি ভিসার জন্য আবেদন করে থাকে। আবেদন করার জন্য আপনি বাংলাদেশের বিভিন্ন এজেন্সির মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়ান কৃষি ভিসার জন্য আবেদন করতে পারেন। বর্তমানে কৃষি ভিসার মূল্য ৫ লক্ষ টাকা বা তারও বেশি।

অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা ২০২৪

বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে অস্ট্রেলিয়ায় কাজের ভিসা চলমান রয়েছে। বেশিরভাগ বাংলাদেশি কাজের জন্য বিভিন্ন দেশে যান, যার মধ্যে অস্ট্রেলিয়া অন্যতম। অস্ট্রেলিয়ায় কাজের চাহিদা অনেক ফলে বাংলাদেশ থেকে অনেক প্রবাসী ভাই অস্ট্রেলিয়ায় পাড়ি জমান। অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা দিয়ে আপনি যে ধরনের কাজ করতে পারবেন তা নিচে দেওয়া হলঃ 
  • কৃষিকাজ
  • হোটেল
  • ড্রাইভার
  • মেকানিক্যাল
  • ক্লিনার
  • গবাদি পশু পালন
  • লেবার
  • কনস্ট্রাকশন 
  • ইলেকট্রনিক্স 
  • ফুড প্যাকেজিং

অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা আবেদন

আপনি নিজেই বসে থেকে অস্ট্রেলিয়ার ভিসা আবেদন করতে পারবেন। বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ায় কাজের ভিসা অনলাইনে আবেদন করা যায়। আপনি যদি সার্কুলার অনুযায়ী অস্ট্রেলিয়ার কাজের ভিসা আবেদন করতে চান তাহলে প্রথমে আপনাকে গুগলে প্রবেশ করতে হবে। 

আরো পড়ুনঃ মালয়েশিয়া শ্রমিক নিয়োগ আজকের খবর

এরপর অফিশিয়াল ওয়েবসাইট খুঁজে বের করতে হবে অথবা https://bangladesh.embassy.gov.au/ এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। তারপর একটি ভিসা ফরম দেখতে পাবেন সেই ফরমটি তথ্য দিয়ে পূরণ করতে হবে তারপর ভিসা ফরমটি সংগ্রহ করে কোন এজেন্সির সাথে যোগাযোগ করলে আপনি অস্ট্রেলিয়ার কাজের ভিসা পেতে পারেন।

অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা ২০২৪ কত টাকা লাগে

আমাদের দেশে অনেক মানুষ রয়েছে যারা অস্ট্রেলিয়ায় কাজের ভিসার জন্য আবেদন করার কথা ভাবছেন। তবে, অস্ট্রেলিয়ার কাজের ভিসা পেতে কত খরচ হয় সে সম্পর্কে তাদের কোনো ধারণা নেই। এই মুহূর্তে অস্ট্রেলিয়া থেকে কাজের ভিসা পাওয়া এবং অস্ট্রেলিয়া যাওয়া সত্যিই সাশ্রয়ী। অনেক লোক অনলাইনে অস্ট্রেলিয়ায় কাজের ভিসা কত টাকা তা খুঁজে থাকেন। সবার সুবিধার্থে নিচে উল্লেখ করা হলো অস্ট্রেলিয়ার কাজের ভিসা কত টাকা লাগে।

  • বাংলাদেশ থেকে অস্ট্রেলিয়ায় কাজের ভিসার জন্য ৩ থেকে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত খরচ হতে পারে।
  • এবং অস্ট্রেলিয়ায় কাজের ভিসায় একজন দালালের মাধ্যম গেলে আপনার ৭ থেকে ৮ লক্ষ টাকারও বেশি খরচ হতে পারে।
  • আর যদি আপনি কোন এজেন্সির মাধ্যমে যান সে ক্ষেত্রে ৫ থেকে ৬ লক্ষ টাকা খরচ হবে।
  • বাংলাদেশ থেকে অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা পেতে সবমিলিয়ে মোট ৮ থেকে ১০ লক্ষ টাকা লাগে অনুমানিক।

শেষ কথা

প্রিয় পাঠক আজকের এই আর্টিকেলে সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার আবেদন শুরু কবে ২০২৪ সালে সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি এছাড়া আপনাদের কে জানিয়েছি যে অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা কিভাবে আবেদন করবে এবং কত টাকা লাগবে আশা করি আপনি সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়েছেন এবং বুঝতে পেরেছেন। আপনার যদি আর কোন প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে নিচে কমেন্ট করে আমাদেরকে জানাতে পারেন।


এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

Edu 360 BD নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url