অনলাইনে জিপিএফ হিসাব জিপিএফ ব্যালেন্স চেক ২০২৪

প্রিয় পাঠক আজকের এই পোস্টে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক ২০২৪ এবং অনলাইন জিপিএফ হিসাব সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব তাই এই পোস্টটি সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। একজন সরকারি চাকরিজীবী রিটাইডের পর একমাত্র ভরসার সম্বল হচ্ছে জিপিএফ এবং পেনশন। চলুন তাহলে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক এবং অনলাইনে জিপিএফ হিসাব দেখার নিয়ম জেনে নেওয়া যাক।
অনেকেই সরকারি চাকরি শেষ হয়ে গেলে তার মেইন ভরসা হয় পেনশন এবং জিপিএফ। অনেকেই রয়েছে তার জিপিএফ ব্যালেন্স কত আছে তা চেক করতে পারেনা তাই এই আর্টিকেলে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করার নিয়ম এবং অনলাইনে জিপিএফ হিসাব দেখার নিয়ম আপনাদের জানাবো এর পাশাপাশি জিপিএফ ক্যালকুলেটর ও অগ্রিম উত্তোলনের নিয়মও জানাবো।
পোস্ট সূচীপত্রঃ 

জিপিএফ কি?

জিপিএফ (GPF) এর পূর্ণরূপ হল General Provident Fund বা সাধারণ ভবিষ্যৎ তহবিল। চাকরি শেষে একজন চাকরিজীবীর ভরসা জায়গা প্রথমটি হল তার জিপিএফ এবং দ্বিতীয়টি হল পেনশন। চাকরি কালীন তার বিপদের একমাত্র ভরসা হলো তার জিপিএফ লোন (GPF Loan)।

অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক ২০২৪ - GPF balance check on mobile

তো আমি এখন আপনাদের জানাবো আপনারা কিভাবে জিপিএফ ফান্ডের ব্যালেন্স চেক করবেন।অনেকেই রয়েছে নিজের জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করতে পারেনা তাই বিভিন্ন বিভ্রান্তির মধ্যে পড়ে আর নয় বিভ্রান্তি মাত্র এক মিনিটে আপনি চাইলে আপনার ফোন অথবা কম্পিউটারের মাধ্যমে আপনার জিপিএ ব্যালেন্স খুব সহজেই অনলাইনের মাধ্যমে চেক করে নিতে পারবেন। চলুন তাহলে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করার নিয়ম জেনে নেওয়া যাক।
  • আপনার জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করার জন্য কম্পিউটার অথবা মোবাইলে গিয়ে যেকোনো একটি ব্রাউজারে ওপেন করে গুগলে গিয়ে www.cafopfm.gov.bd অথবা cafopfm.gov.bd লিখে সার্চ দিন।
  • তারপর আপনি জিপিএফের সরকারি ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন তারপর একটু নিচে GPF Information লিখা আছে সেই অপশনে ক্লিক করুন। 
  • তারপর নতুন একটি Window দেখাবে তারপর সেখানে তিনটি খালিঘর দেখতে পেয়ে যাবেন প্রথমটিতে NID/Smart ID  অপশনে আপনার ভোটের আইডি কার্ড নাম্বারটি দিয়ে দিন সঠিকভাবে।
  • তারপর Phone No অপশনে আপনার মোবাইল নাম্বারটি দিন যেটা দিয়ে আপনি জিপিএফ অ্যাকাউন্ট খোলার সময় ব্যবহার করেছিলেন।
  • এরপর Fiacal Year অপশন থাকলে সেখানে সাল এবং তারিখ বসিয়ে দিন তারপর Submit বাটনে ক্লিক করুন। আপনার কাছে যদি Fiacal Year অপশন না আসে তাহলে আইডি কার্ড নাম্বার এবং ফোন নাম্বার বসিয়ে Submit বাটনে ক্লিক করে দিবেন।
  • তারপর আপনি যেই নাম্বারে জিপিএফ করেছিলেন সেই নাম্বারে একটি OTP কোড আসবে সেই কোডটি তুলে সেখানে বসিয়ে আবারো Submit বাটনে ক্লিক করুন তাহলেই আপনার জিপিএফ ব্যালেন্স দেখতে পারবেন এবং জিপিএফ এর সকল ইনফরমেশন দেখতে পারবেন।
  • যদি জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করার নিয়ম না বুঝে থাকেন তাহলে নিচের ছবিগুলি অনুসরণ করুন।
জিপিএফ ব্যালেন্স চেক ২০২৪ - GPF balance check on mobile


জিপিএফ ব্যালেন্স চেক ২০২৪ - GPF balance check on mobile

অনলাইন জিপিএফ হিসাব দেখার নিয়ম

এখন আমি আপনাদের জানাবো কিভাবে একজন সরকারি কর্মচারী নিজের মোবাইল অথবা কম্পিউটার ব্যবহার করে অনলাইনে জিপিএফ হিসাব চেক করবেন তো চলুন বেশি দেরি না করে অনলাইনে জিপিএফ হিসাব দেখার নিয়ম ধাপে ধাপে জেনে নেওয়া যাক।
  • তো সর্বপ্রথম আপনাদের মোবাইল অথবা কম্পিউটারে যে কোন একটি ইন্টারনেট ব্রাউজার ওপেন করতে হবে তারপর সার্চ অপশনে গিয়ে GPF information লিখে সার্চ দিতে হবে।
  • তারপর cafopfm.gov.bd ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে।
  • উক্ত ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর GPF information নামে একটি অপশন পেয়ে যাবেন সেখানে প্রবেশ করুন। 
  • তারপর আপনার উক্ত স্মার্ট আইডি কার্ড নাম্বার এবং মোবাইল নাম্বার দিয়ে Submit বাটনে ক্লিক করুন।
  • তারপর আপনার মোবাইল নাম্বারে একটি OTP কোড যাবে সেই কোডটি সঠিকভাবে বসিয়ে আবারো Submit বাটনে ক্লিক করুন।
  • তারপর আপনার সামনে আরেকটি নতুন পেইজ ওপেন হবে সেখানে GPF Accounts Slip অপশনটিতে ক্লিক করে আপনি যেই সালের জিপিএফ হিসাব স্লিপ দেখতে চাচ্ছেন সেই সালটি সিলেট করুন।
  • তারপর Go বাটনে ক্লিক করলেই আপনার জিপিএফ একাউন্টের হিসাব এবং স্লিপ দেখতে পারবেন।

জিপিএফ হিসাব ক্যালকুলেটর

জিপিএফের হিসাব ক্যালকুলেশন করা একটু কঠিন কাজ এবং আমরা অনেক সময় এটা বুঝি না যে আসলে কি হিসাব হবে ওপেনিং ব্যালেন্স কত হবে তাই এখন এই অংশে আপনাদের আমি জানাবো কিভাবে আপনারা জিপিএফ এর হিসাব ক্যালকুলেটরের মাধ্যমে বের করবেন।
তো প্রথমে আপনার হাতে থাকা মোবাইল অথবা কম্পিউটারের মাধ্যমে যে কোন একটি ব্রাউজার ওপেন করে gpf calculator লিখে সার্চ করবেন তারপর প্রথমে যে ওয়েবসাইটটি পাবেন সেটিতে প্রবেশ করবেন।
তারপরে আপনি চারটি খালি ঘর অপশন দেখতে পাবেন। সেখানে সঠিক তথ্য দিয়ে ফর্মটি পূরণ করে Result বাট অনেক ক্লিক করলে আপনি আপনার জিপিএফ এর হিসাব পেয়ে যাবেন।
এছাড়া আপনি যদি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জিপিএফ এর হিসাব ক্যালকুলেশন না করতে চান তাহলে আপনার মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্লে স্টোরে গিয়ে gpf calculator লিখে সার্চ করলেই অনেকগুলো অ্যাপস পেয়ে যাবেন সেখান থেকে যেকোনো একটি GPF calculator Apps ইনস্টল করে জিপিএফের হিসাব ক্যালকুলেট করতে পারবেন।

ব্যক্তিগত জিপিএফ তথ্য - GPF information

আপনি যদি নিজের ব্যক্তিগত জিপিএফ ব্যালেন্স এবং হিসাব জানতে চান তাহলেই এই পোষ্টের অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক অংশের একই নিয়ম টি অনুসরণ করে আপনি আপনার ব্যক্তিগত জিপিএফ এর তথ্য জেনে নিতে পারবেন খুব সহজেই।

জিপিএফ অগ্রিম উত্তোলনের নিয়ম

বিভিন্ন সরকারি কর্মচারী তাদের প্রয়োজনে তাদের জিপিএফ ফান্ড থেকে অগ্রিম উত্তোলন করে থাকে কিন্তু অনেকেই জিপিএফ অগ্রিম উত্তোলন কিভাবে করতে হয় সেটা নিয়ম জানেনা। তাই এই অংশে আপনাদের জিপিএফ অগ্রিম উত্তোলনের নিয়ম সম্পর্কে জানাবো। 

জিপিএফ অগ্রিম উত্তোলন বা জিপিএফ লোন নেওয়ার জন্য প্রথমেই আপনাকে জিপিএফ এর নিয়ম অনুযায়ী জিপিএফ স্লিপ সংগ্রহ করতে হবে। জিপিএফ স্লিপ আপনি কিভাবে সংগ্রহ করবেন? আপনি যদি কোন অফিসার হয়ে থাকেন তাহলে আপনার আইডি থেকে জিপিএফ এর স্লিপ সংগ্রহ করতে পারেন অথবা নিচে দেওয়া অংশটি পড়ে জেনে নিতে পারেন কিভাবে জিপিএফ স্লিপ সংগ্রহ করতে হয়।
জিপিএফ স্লিপ সংগ্রহ করার পর আপনি দুইভাবে জিপিএফ অগ্রিম উত্তোলন করতে পারবেন কি কি তার নিচে দেওয়া হল।
  • ফেরতযোগ্য জিপিএফ অগ্রিমঃ এটি আপনাকে ৫% মুনাফা সহ পরিশোধ করতে হবে। 
  • জিপিএফের ফেরত যোগ্য লোনঃ  এই লোনটি আপনারা ২৪,৩৬ ও ৪৮ কিস্তিতে পরিশোধ করতে পারবেন।
জিপিএফ অগ্রিম উত্তোলনের নিয়মঃ
  • যেসব কর্মচারী বা কর্মকর্তার বয়স ৫২ বছর পূর্ণ হয়েছে।
  • বয়স প্রমাণ করার জন্য এসএসসি পাসের সনদপত্র এক কপি।
  • জিপিএফ এর সাধারণ ভবিষ্যৎ তহবিল হতে অগ্রিম উত্তোলনের জন্য আবেদনের ফরম নং ২৬৩৯ মাধ্যমে জিপিএফ এর অফিসে জমা দিতে হবে।

জিপিএফ স্লিপ

বিশেষ করে যারা সরকারি চাকরি করেন তারা General Provident Fund বা জিপিএফ ফান্ডে প্রতি মাসে মূল বেতনের সর্বনিম্ন ৫% ও সর্বোচ্চ ২৫% হারে জমা রাখতে পারেন। বছর শেষে জমাকৃত টাকার হিসাব জিপিএফ স্লিপের মাধ্যমে আমাদের একাউন্টস বা এজি অফিস সরবরাহ করে থাকে। জিপিএফ এর হিসাব বর্তমানে iBAS++ ও www.cafopfm.gov.bd ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সংগ্রহ করা যায়।

যেখানে স্বয়ংক্রিয়ভাবে জিপিএফ এর হিসাব গণনা করা হয় অথবা যারা iBAS++ এর মাধ্যমে বেতন বিল সাবমিট করেন সেখানে রিপোর্ট অপশন থেকেও জিপিএফ স্লিপ সংগ্রহ করা যায়।

FAQ

জিপিএফ খুলতে কি কি যোগ্যতা লাগে?

একজন সরকারি কর্মচারী চাকরির মেয়াদ ২ বছর পূর্ণ হলে এই জিপিএফ খুলতে পারবেন তাহলে শর্ত হলো একজন সরকারি কর্মচারীর চাকরির মেয়াদ হতে হবে ২ বছর তবে একজন সরকারি কর্মচারী ইচ্ছা করলে দুই বছর পূর্ণ হওয়ার পূর্বেই তহবিলে যোগদান করতে পারবেন।

জিপিএফ খোলা কি বাধ্যতামূলক?

হ্যাঁ একজন সরকারি কর্মচারী চাকরির মেয়াদ ২ বছর পূর্ণ হওয়ার পর এই তহবিলের যোগদান করা বাধ্যতামূলক। প্রাইমারি শিক্ষকগণ চাকরিতে যোগদান করার ২ বছরের মধ্য জিপিএফ খোলার জন্য উপজেলা শিক্ষা অফিস থেকে জানানো হবে তখন এই অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে তবে উপজেলা ভেদে সময়ের তারতম্য হতে পারে।

ভবিষ্যৎ তহবিল থেকে সর্বোচ্চ কত টাকা তোলা যায়?

বর্তমান নিয়মে একজন সরকারি কর্মচারীর বয়স ৫২ বছর হলেই মোট জমান ৮০ শতাংশ তিনি তুলে নিতে পারবেন ৫২ বছর বয়স হওয়ার আগেই তুলে নিতে চাইলে কোন অসুবিধা নেই সেক্ষেত্রে তিনি পাবেন ৭৫ শতাংশ টাকা এবং চারটি কিস্তিতে এই টাকা তুলতে পারবেন।

জিপিএফ এ টাকা রাখার কি কি সুবিধা রয়েছে?

  • জিপিএফ এ টাকা রাখলে সুদের হার ১৩%
  • চক্রবৃদ্ধি হারে প্রদান করা হয়।
  • জিপিএফ থেকে ফেরতযোগ্য অগ্রিম টাকা নিতে পারবেন।
  • চাকরিজীবীর বয়স ৫২ বছরের উর্ধ্বে হলে অফেরতযোগ্য ঋণ নেওয়া যায়।
সতর্কতাঃ জিপিএফে টাকা রাখার আগে অবশ্যই একজন আলেমকে জিজ্ঞেস করে নিবেন যে জিপিএফ যে % সুদ প্রদান করে সেটি হালাল নাকি হারাম তারপর জিপিএফ এ টাকা রাখবেন কারণ সুদ খাওয়া ইসলামে হারাম।

লেখকের শেষ কথা

প্রিয় পাঠক এই আর্টিকেল পর্বে অনলাইনে জিপিএফ হিসাব জিপিএফ ব্যালেন্স চেক ২০২৪ সম্পর্কে বিস্তারিত জানিয়েছি আশা করি আপনি সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়েছেন এর পাশাপাশি আপনাদের জানিয়েছি জিপিএফ এর উত্তোলনের নিয়ম এবং হিসাব ক্যালকুলেট করবেন কিভাবে এছাড়াও আরো অনেক কিছু জানিয়েছি।

আপনার যদি বুঝতে কোন অসুবিধা হয়ে থাকে অথবা কোন প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে নিচে কমেন্ট করে আমাদেরকে জানাতে পারেন। আর জিপিএপে যে পার্সেন্টেজ % হারে সুদ দেয় সেটি ইসলামে হালাল নাকি হারাম সেটি বিবেচনা করে তারপর জিপিএফে টাকা রাখবেন।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

Edu 360 BD নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url