ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকা ২০২৪

আজকের এই আর্টিকেলে ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। ১৯৮৫ সালে ইউরোপের সকল দেশকে নিয়ে একটি চুক্তিতে স্বাক্ষরিত হয় সেই চুক্তির মূল উদ্দেশ্য ছিল এক দেশ থেকে অন্য দেশের যাতায়াত সহজ করা আর এই চুক্তিতে অনেক দেশেই স্বাক্ষর করেনি আর সে দেশকে ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশ বলা হয়।
ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকা দেখে নিন
সেনজেনভুক্ত দেশগুলির অনেক সুযোগ-সুবিধা থেকে থাকে কিন্তু যে দেশগুলি ইউরোপের সেনজেন ভুক্ত নয় সেই দেশগুলির যাতায়াত অতটা সুবিধার না সেজন্য অনেকেই জানতে চেয়ে থাকেন ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশগুলি কোনগুলি?

সেজন্য আপনাদের সুবিধার্থে আজকের এই আর্টিকেলে ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব এর পাশাপাশি সেনজেন দেশের সুবিধা কি এবং সেনজেন ও নন সেনজেন ভুক্ত দেশের মধ্যে পার্থক্য বিস্তারিত তুলে ধরার চেষ্টা করব তাই আজকের এই আর্টিকেল পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। 

Schengen অর্থ কি - সেনজেন কি

Schengen হলো এক ধরনের ভিসা যা কিনা একজন ব্যক্তিকে বৈধভাবে প্রবেশ করতে দেয়। ইউরোপের সেনজেন এলাকা যেখানে মানুষ এক দেশ থেকে আরেক দেশ খুব সহজেই চলাচল করতে পারে কোন প্রকার অনুমতি ছাড়াই। বিশ্বের প্রায় ৬২ টা দেশের নাগরিকরা কোন ভিসা ছাড়াই ইউরোপের সেনজেনভুক্ত ২৭ টি দেশে প্রবেশ করতে পারবেন এবং সেখানে ৩ মাস পর্যন্ত বসবাস করতে পারবে। 

সেনজেন ভুক্ত দেশ কয়টি - সেনজেন দেশের সুবিধা কি

অনেকেই জানতে চেয়ে থাকেন ইউরোপের সেনজেন ভুক্ত দেশ কয়টি? ইউরোপের সেনজেন ভুক্ত দেশ ২৭ টি। আগে ২৬ টি ছিল তারপরে ২০২৩ সালে জানুয়ারি মাসে ক্রোয়েশিয়া নামক একটি দেশ ইউরোপের সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকায় জায়গা করে নেয় আর সেই কারণেই বর্তমানে সেনজেন ভুক্ত দেশের সংখ্যা ২৭ টি। 


সেনজেন ভুক্ত দেশের মূল সুবিধা হচ্ছে একটি সেনজেন ভিসা দিয়ে আপনি ইউরোপের ইউনিয়নের ২৬ টি সেনজেন ভুক্ত দেশ ঘুরে বেড়াতে পারবেন কোন প্রকার ভিসা ছাড়াই। শুধু তাই না এই সেনজেন ভুক্ত দেশে আপনি বসবাস করতে পারবেন ৩ মাস পর্যন্ত এই হল সেনজেন দেশের সুবিধা।

ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকা

অনেকেই জানতে চেয়ে থাকেন ইউরোপের নন সেনজেনভুক্ত দেশগুলি কোনগুলি। ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটি দেশ রয়েছে। ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশগুলি বলতে ইউরোপীয় হওয়ার পরেও সেনজেনভুক্ত তালিকায় এখন পর্যন্ত জায়গা করে নিতে পারেনি যে দেশগুলো সেগুলোকেই ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশ বলা হয়ে থাকে। ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকা নিচে দেওয়া হল
  1. রোমানিয়া
  2. পোল্যান্ড
  3. বুলগেরিয়া
  4. ক্রোয়েশিয়া
  5. সার্বিয়া
  6. সাইপ্রাস
  7. আলবেনিয়া
  8. আয়ারল্যান্ড
  9. বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা
  10. মন্টেগ্রো
  11. মালদোভা
  12. বেলারুশ
  13. মেসিডোনিয়া
  14. ইউক্রেন
  15. আরমেনিয়া
  16. আজারবাইন
উপরের উল্লেখিত যে দেশগুলি দেখতে পাচ্ছেন আপনারা বর্তমান সময়ে এই সকল দেশগুলি ইউরোপের নন সেনভুক্ত দেশগুলির তালিকাতে রয়েছে। এবার আমরা জানবো সেনজেন ভুক্ত।

সেনজেন ও নন সেনজেন ভুক্ত দেশের মধ্যে পার্থক্য কি?

উপরে আমরা সেনজেন দেশের সুবিধা কি এবং ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকা সম্পর্কে জানলাম এখন আমরা সেনজেন ও নন সেনজেন ভুক্ত দেশের মধ্যে পার্থক্য কি সে বিষয়ে জানব। এক কথায় বলতে গেলে সেনজেন ভুক্ত দেশ হলো ইউরোপ ইউনিয়নের স্বাক্ষরিত ২৭ টি দেশকে সেনজেন ভুক্ত দেশ বলা হয় আর নন সেনজন ভুক্ত দেশগুলো ইতিমধ্যে আপনাদেরকে জানিয়ে দিয়েছি।

কোনগুলো যে দেশগুলো ১৯৮৫ সালে লুক্সেমবার্গের অনুষ্ঠিত সেনজেন চুক্তিতে স্বাক্ষর করেনি সেই দেশগুলোকে নন সেনজেন ভুক্ত বলা হয়ে থাকে। সেনজেন ও নন সেনজেন দেশগুলির পার্থক্য হচ্ছে সেনজেন ভুক্ত দেশগুলি সেনজেন অঞ্চলে যে ২৬ টি দেশ রয়েছে সেই দেশগুলিতে কোন প্রকার ভিসা ছাড়াই যাতায়াত করতে পারবে এবং তিন মাস পর্যন্ত বসবাস করতে পারবে।


নন সেনজেন ভুক্ত দেশ মূল সমস্যা হচ্ছে ইউরোপের এক দেশ থেকে আরেক দেশে যেতে হলে আলাদাভাবে ভিসা আবেদন করতে হবে তাছাড়া আপনি ইউরোপের অন্য দেশে ভ্রমণ করতে পারবেন না আশা করি আপনি সেনজেন ও নন সেনজেন ভুক্ত দেশের মধ্যে পার্থক্য বুঝতে পেরেছেন।

কোন কোন ইউরোপীয় দেশ শেনজেনের অন্তর্ভুক্ত নয়

ইউরোপীয় দেশ হয়েও ইউরোপ ইউনিয়নের সদস্য অর্থাৎ সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকায় নেই সেই দেশগুলি হলো নরওয়ে,সুইজারল্যান্ড, আইসল্যান্ড এবং লিচেনস্টাইন। এই দেশগুলি মূলত ইউরোপীয় দেশ হয়েও নন সেনজন ভুক্ত দেশের তালিকায় রয়েছে এর কারণে এ দেশগুলো ইউরোপীয় দেশ শেনজেনের অন্তর্ভুক্ত নয়।

ইউরোপের গরিব দেশের তালিকা

মাথাপিছু জিএনআই ভিত্তিতে ইউরোপের ১০টি গরীব দেশ রয়েছে যার তালিকা নিচে দেওয়া হল।

ইউরোপের 10টি দরিদ্রতম দেশের নাম

  মাথাপিছু জিএনআই দ্বারা র‍্যাঙ্ক

রাশিয়া

$১০,৬৯০

মন্টুলগার

$৭,৪৯০

সার্বিয়া

$৭,৯০

বেলারুশ

$৬,৩৩০

হার্জেগোভিনা

$৬,০৯০

বসনিয়া 

$৬,০৯০

ম্যাসেডোনিয়া প্রজাতন্ত্র

$৫,৭২০

আলবেনিয়া

$৫,২১০

মোল্দোভা

$৪,৫৭০

ইউক্রেন

$৩,৫৪০

সেনজেন ভুক্ত দেশের ম্যাপ

অনেকে দেখতে চেয়ে থাকেন সেনজেন ভুক্ত দেশের ম্যাপ দেখতে কেমন হয়ে থাকে তাদের দেখানোর জন্য নিচে সেনজেন ভুক্ত দেশের ম্যাপ এর ছবি দেওয়া হল

সেনজেন ভুক্ত সর্বশেষ দেশ কোনটি

১৯৮৫ সালে সেনজেন চুক্তিতে পাঁচটি দেশ স্বাক্ষর করেছিল তখন থেকে মোট ২৭ টি দেশ বর্তমানে বিস্তৃত রয়েছে। ক্রোয়েশিয়া নামক একটি দেশ ২০২৩ সালে জানুয়ারি মাসে সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকায় যুক্ত হন এবং এই ক্রোয়েশিয়ায় সেনজেন ভুক্ত সর্বশেষ দেশ।

আমাদের শেষ কথা

আজকের এই আর্টিকেলে আপনাদের সাথে ইউরোপের নন সেনজেন ভুক্ত দেশের তালিকা উপস্থাপন করেছি এর পাশাপাশি কোন কোন ইউরোপীয় দেশ শেনজেনের অন্তর্ভুক্ত নয় এবং ইউরোপের গরিব দেশের তালিকা, সেনজেন ভুক্ত সর্বশেষ দেশ কোনটি এছাড়াও সেনজেন দেশের সুবিধা কি কি সকল বিষয় বিস্তারিত আলোচনা করেছি আশা করি আপনি সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়েছেন এবং উপকৃত হয়েছেন।

আমাদের এই পোস্টটি পড়ে যদি আপনার ভালো লেগে থাকে তাহলে অন্যদের সাথে শেয়ার করে দিবে। ইউরোপের সেনজেন অথবা নন সেনজেন ভুক্ত দেশ সম্পর্কে যদি আপনার কোন প্রশ্ন থেকে থাকে তবে নিচে কমেন্ট করতে পারেন। বিভিন্ন রকম তথ্য পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি দিয়ে প্রতিনিয়ত চোখ রাখতে পারেন আমাদের সাথে এতক্ষণ থাকার জন্য ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

Edu 360 BD নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url