সৌদি আরবের ফ্রি ভিসার দাম কত ২০২৪ বিস্তারিত জানুন

বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছরই হাজার হাজার মানুষ সৌদি আরবে বিভিন্ন কাজের উদ্দেশ্যে গিয়ে থাকে। যারা এই মুহূর্তে যারা সৌদি আরবের ফ্রি ভিসাতে যেতে চাচ্ছেন তারা অনেকেই জানতে চেয়ে থাকেন সৌদি আরবের ফ্রি ভিসার দাম কত? ফ্রি ভিসা কেমন এই সকল প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন এই আর্টিকেলে এর পাশাপাশি সৌদি আরবের কোম্পানি ভিসা বেতন কত সে সম্পর্কে জানার চেষ্টা করব।
সৌদি আরবের ফ্রি ভিসার দাম কত | কোম্পানি ভিসা বেতন কত
প্রথমেই সৌদি আরবের ফ্রি ভিসার দাম কত এবং সৌদি আরবের কোম্পানি ভিসা বেতন কত সে সম্পর্কে আপনাদের জানানোর চেষ্টা করব এর পাশাপাশি জানানোর চেষ্টা করব যে আপনারা যদি ফ্রি ভিসা দিয়ে আসেন আসার পর কত টাকা আপনার ইনকাম করতে পারবেন আর কি কি ধরনের কাজ হবে এই বিষয়টা জানানোর চেষ্টা করব তাই এই পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়তে থাকুন।
পোস্ট সূচিপত্রঃ 

ভূমিকা

আয়তনের দিক দিয়ে সৌদি আরব দেশটি এশিয়ার সবচেয়ে বড় আরব দেশ। বর্তমানে সৌদি আরবে ২০ লক্ষেরও বেশি বাংলাদেশী নাগরিক রয়েছে।  যারা সৌদি আরবে ফ্রি ভিসায় আসতে চাচ্ছেন বা আসার পরিকল্পনা করছেন তাদের সৌদি আরবের ফ্রি ভিসা কেমন এবং সৌদি আরবের ফ্রি ভিসার দাম কত ও কি কি ধরনের কাজ করতে হবে এই সকল বিষয় জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। 

ফ্রি ভিসা কি

অনেকে জানতে চেয়ে থাকেন সৌদি আরবের ফ্রি ভিসা কি চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক। প্রথমত হচ্ছে ফ্রি ভিসা বলতে কোন ভিসা নেই আপনি সৌদি আরবে যেতে চান তাহলে যেকোন ভিসা নিয়ে যেতে হবে যেমন জেনারেল ভিসা এবং ডোমেস্টিক ভিসা যে কোন ভিসা নিয়ে যেতে পারবেন। 
আপনার মনে হয়তো প্রশ্ন জাগছে তাহলে ফ্রি ভিসা কি জিনিস ফ্রি ভিসায় কিভাবে যাই ফ্রি ভিসা হচ্ছে ধরেন আপনি সৌদি আরবে যাচ্ছেন যেই ভিসাতে যান না কেন যাওয়ার পরে আপনি যদি কফিলের সাথে চুক্তি করে অন্য কাজ করেন তখন ওইটাকে ফ্রি ভিসা বলে। 

সৌদি আরবের ফ্রি ভিসার দাম কত

মক্তব আমেল থেকে যখন ভিসা উঠানো হয় তখন একটা কপিলের মাত্র ২০০০ রিয়াল থেকে ২৫০০ রিয়ালের মতো খরচ হয় এদিক সেদিক করে ৩ হাজার রিয়াল হয় কিন্তু সেই ভিসাটা যদি কপিল এর কাছ থেকে আমরা ডাইরেক্ট নিতে চাই তখন ৫ থেকে ৬০০০ হাজার রিয়াল লেগে যায়। 

বর্তমান সময়ে যেহেতু টাকার মান বেশি তাই এটি কনভার্ট করতে গেলে এক লাখ টাকা থেকে ১.৫ লাখ টাকার মত হয়ে যাবে তো প্রকৃতপক্ষে সৌদি আরবের ফ্রি ভিসার দাম ১ থেকে ১.৫ লাখ টাকা। আর আপনি যদি অবৈধভাবে আসেন তাহলে সৌদি আরবের ফ্রি ভিসার দাম পড়বে ২ লাখ টাকা থেকে ৩ লাখ টাকা। 

তবে সৌদি আরবের ফ্রি ভিসার মেইন সমস্যাটা হচ্ছে ইকামা প্রথমে সৌদি আরব যাওয়ার পর তিন মাস ফ্রি ভিসার মেয়াদ থাকে তারপর আপনাকে ইকামা বানাতে হয় তাছাড়া আপনি সৌদি আরবে থাকতে পারবেন না আর এই ইকামা ১ বছর মেয়াদে বানাতে প্রায় ৩ লক্ষ টাকার কাছাকাছি লেগে যায়। 

সৌদি আরবের কোম্পানি ভিসা বেতন কত

অনেকেই জানতে চেয়ে থাকেন সৌদি আরবের কোম্পানি ভিসা বেতন কত? আসলে এটা বলা অসম্ভব কারণ কোম্পানি ভিসা বেতন মূলত কোম্পানি ও আপনার কাজের দক্ষতার ওপর নির্ভর করে। তবে যারা বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবে কোম্পানির কাজের উদ্দেশ্যে যেতে চান তাদের বেতন কত সে সম্পর্কে জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। 

আপনি যদি টেকনিক্যাল, ড্রাইভিং ইত্যাদি এই সব কাজের উপর ভালো দক্ষতা থাকে বা কাজ শিখে আসেন তাহলে আপনি ভালো বেতন এবং ভালো সুযোগ সুবিধা পাবেন এছাড়াও যে কোন কোম্পানিতে কাজ করতে পারবেন। আমি যদি কাজ না শিখে আসেন তাহলে কম বেতন পাবেন।
যদি ভালো কোম্পানি হয় তাহলে ১৫০০ থেকে ২৫০০ রিয়াল পর্যন্ত পাবেন যা বাংলাদেশী টাকায় কনভার্ট করলে ৪০ থেকে ৮০ হাজার টাকার কাছাকাছি। তবে যেখানেই আপনি কাজ করেন না কেন আপনাকে ধৈর্য সহকারে সততার সাথে কাজ করতে হবে।

সৌদি আরবের ফ্রি ভিসা কেমন

যারা সৌদি যাওয়ার কথা ভাবছেন অনেকেরই মনে একটি প্রশ্ন জাগে সৌদি আরবের ফ্রি ভিসা পাওয়া যায় কিনা ফ্রি ভিসায় কেমন সুযোগ এই সকল প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন এই আর্টিকেলে। একদম ফ্রি বলতে কোন ভিসা নাই মালিকের অনুমতি নিয়ে অন্য কাজ করাকেই বলে ফ্রি ভিসা। আপনি যদি এই ফ্রি ভিসা সৌদিতে আসেন তাহলে থাকা-খাওয়া, বিমান ভাড়া সবকিছু আপনাকে বহন করতে হবে। 

এবং মালিককে মাসিক বা বছরিক হিসেবে টাকা দিতে হবে এবং যখন ছুটিতে যাবেন তখন সরকারকে মাসিক একটা টাকা দিতে হয় যে ২ মাস ৩ মাস আপনি যত মাস থাকবেন ওই হিসাব করে সরকারকে টাকা দিতে হয় তো ওই টাকাটা আপনাকে নিজেকে বহন করতে হবে। 

সারোয়ার আলম জানান একদমই যাওয়া যাবেনা ফ্রি ভিসার নামে এবং সৌদি আরবের ইনকাম ৮০০ রিয়াল থেকে ১০০০ হাজার রিয়াল এর চেয়ে বেশি পাওয়া যাবে না এটা হিসাব করে যেন খরচ করে যায় কাজেই বেশি পয়সা খরচ করে সৌদি আরবে যাওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই 

কারণ ৮০০ থেকে ১০০০ রিয়ালের বেশি পাওয়া যাবে না এটাই হচ্ছে ওখানকার ইনকাম তো যারা যেতে চাচ্ছেন সৌদি আরবের ফ্রি ভিসাই তারা চিন্তা ভাবনা করে যাবেন।

সৌদি আরব ভিসা কত প্রকার

অনেকেই জানেন না সৌদি আরবে কি কি ভিসা রয়েছে যেগুলির মাধ্যমে আপনারা যেতে পারবেন চলুন তাহলে সৌদি আরবে ভিসা কত প্রকার এবং কি কি সেগুলি জেনে নেওয়া যাক।

১. সরকারি ভিসা
আপনার যদি ভালো স্কিল থাকে তাহলে আপনি সরকারি ভিসায় সৌদি আরব যেতে পারেন প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সাবমিট করে।

২. পর্যটন ভিসা
পর্যটক ভিসা বলতে যেসব মানুষ বিভিন্ন দেশ ঘুরে বেড়ায় তাদের জন্য এই ভিসাটি।

৩. বিজনেস ভিসা
আপনি যদি সৌদি আরবে গিয়ে কোন বিজনেস করার চিন্তাভাবনা করে থাকেন তাহলে সেটাও আপনি করতে পারেন সৌদি সরকার আপনাকে সেটার জন্য অনুমতি দিয়েছে।

৪. এমপ্লয়মেন্ট ভিসা
এমপ্লয়মেন্ট ভিসা হচ্ছে কর্মচারী ভিসা যা প্রাইভ সেক্টর হতে পারে এবং সরকারিভাবে হতে পারে।আপনার দক্ষতা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সাবমিট করে এমপ্লয়মেন্ট ভিসায় সৌদি যেতে পারবেন।

৫. ফ্যামিলি ভিজিট ভিসা
ফ্যামিলি ভিজিট ভিসা বলতে আপনার পরিবারের সবাইকে নিয়ে সৌদি ঘুরে আসতে পারবেন সৌদি সরকার বাংলাদেশীদের জন্য অনুমতি দিয়েছেন।

৬. টুরিস্ট ভিসা
টুরিস্ট ভিসা বলতে আপনি যদি এককভাবে সৌদি ঘুরতে যেতে চান তাকে টুরিস্ট ভিসা বলা হয়।

৭. ওমরা ভিসা
আমরা যারা ওমরা হজ করতে যাই তাদের জন্যও ওমরা ভিসা রয়েছে।
৮. স্টুডেন্ট ভিসা
লেখাপড়া করার জন্য যে ভিসাতে যাওয়া হয় সেটাই হচ্ছে স্টুডেন্ট ভিসা।

তো আমরা আপনাদের জানিয়েছি সৌদি আরব ভিসা কত প্রকার এবং কি কি এছাড়াও কোন বিষয়ে কোন কাজের জন্য যেতে পারবেন সকল কিছু উল্লেখ করেছি আশা করি আপনি বুঝতে পেরেছেন।

সৌদি আরবের নতুন ভিসা কবে খুলবে

সৌদির রাষ্ট্রদূত বলেন এক বছর যাবত যারা পবিত্র হজ্জ পালন করেন তাদের জন্য শুধু ই ভিসা চালু ছিল এখন থেকে ভ্রমণ ও কাজ সব ধরনের কর্মকাণ্ডেই সৌদি আরবে যেতে পারবেন ইভিশা এবং ইলেকট্রনিক ভিসা পুনরায় চালু করা হয়েছে। তাই যারা সৌদি আরবে যাওয়ার চিন্তা-ভাবনা করছেন তাদের জন্য সুবর্ণ সুযোগ। 

শেষ কথা

আপনারা যারা সৌদিতে ফ্রি ভিসা যেতে চাচ্ছেন তাদেরকে আমি বলব ফ্রি ভিসায় কক্ষনো সৌদিতে যাবেন না কারণ সৌদির ফ্রি ভিসায় যারা গিয়েছে তাদের করুন অবস্থা তাই এই সৌদি আরবের ফ্রি ভিসাই যাওয়ার আগে ভালো করে চিন্তা ভাবনা করে যাবেন। 

আজকের এই আর্টিকেলে আপনাদের সাথে সৌদি আরবের ফ্রি ভিসার দাম কত এবং সৌদি আরবের কোম্পানি ভিসা বেতন কত সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি আশা করি সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়েছেন এবং উপকৃত হয়েছেন। 

আপনার যদি সৌদি আরবের ফ্রি ভিসা সম্পর্কিত কোন প্রশ্ন থেকে থাকে তবে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন। এই সকল বিভিন্ন রকম তথ্য পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটিতে চোখ রাখতে পারেন। ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

Edu 360 BD নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url