মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট করার ব্যাকগ্রাউন্ড apps download

এই পোস্টে মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট করার ব্যাকগ্রাউন্ড apps সম্পর্কে আলোচনা করব। মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট করার বেশ কয়েকটি apps এবং সফটওয়্যার রয়েছে যা দিয়ে আপনি চাইলে এক ক্লিকেই আপনার ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করতে পারবেন একদম রিয়াল ভাবে কেউ বুঝতে পারবে না যে এটি এডিট করা ছবি। চলুন তাহলে ছবি এডিট করার ব্যাকগ্রাউন্ড apps এবং মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।
আমরা অনেকেই রয়েছি ছবি তুলতে পছন্দ করি এবং বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে ছবি গুলো শেয়ার করে থাকি। অনেক সময় ছবি তোলার পর ছবির ব্যাকগ্রাউন্ডে অনেক কিছু চলে আসে তাই ছবি দেখতে খারাপ লাগে এর জন্য অনেকেই ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড চেঞ্জ করতে চান তাদেরই জন্য মূলত এই আর্টিকেলটি কারণ এই আর্টিকেলে মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট করার ব্যাকগ্রাউন্ড apps সম্পর্কে বিস্তারিত জানাবো।
পোস্ট সূচীপত্রঃ 

ছবি এডিট করার নিয়ম

আপনি যদি মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট করতে চান তাহলে প্রথমেই আপনাকে ভাবতে হবে আপনি কি এডিট করতে চাচ্ছেন আপনি যদি ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড চেঞ্জ করতে চান তাহলে আপনাকে ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড চেঞ্জ করার অ্যাপ ব্যবহার করতে হবে আর যদি আপনি ছবিকে সুন্দর করতে চান তাহলে আপনাকে নির্দিষ্ট ছবি সুন্দর করার অ্যাপস ব্যবহার করতে পারবেন।
বিভিন্ন apps এর বিভিন্ন রকম উপকারিতা রয়েছে তাই আপনাকে প্রথমে আগে আপনার ছবির কি কি চেঞ্জ করবেন এডিট করবেন সেটা ঠিক করতে হবে তারপর আপনি যদি ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড এডিট করতে চান তাহলে এই আর্টিকেলে জানানোর নিচে বেশ কয়েকটি অ্যাপের নাম দেয়া হলো যারা আপনারা খুব সহজেই এক ক্লিকেই আপনার ছবিটি ব্যাকগ্রাউন্ড চেঞ্জ করে ফেলতে পারবেন এডিট করে।

ছবি এডিট করার ব্যাকগ্রাউন্ড apps - Photoleap: Photo Editor

এক ক্লিকে ফটো এডিটিং করার জন্য আমার জীবনে দেখা সবচাইতে সেরা অ্যাপটি আজকের পোস্টে আপনাদের সাথে শেয়ার করতে যাচ্ছি যেই অ্যাপটি অনেকেই সিকিউরিটি ব্যবহার করে থাকে এবং মাত্র এক ক্লিকে সব ধরনের ফটো এডিটিং করে থাকে। এই অ্যাপটি আমরা প্রত্যেকের মোবাইল ফোনে ইন্সটল করতে পারবে এবং আনলিমিটেড ফটো এডিটিং করতে পারব। 

তো প্রত্যেক ফটো এডিটরের জন্য আজকের এই পোস্টটি খুবই ইম্পরট্যান্ট হতে যাচ্ছে অবশ্যই আপনারা সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ে এই নতুন অ্যাপটি সম্পর্কে জেনে নিবেন। চলুন তাহলে ছবি এডিট করার ব্যাকগ্রাউন্ড apps সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

ছবি এডিট করার ব্যাকগ্রাউন্ড apps এর নাম হচ্ছে Photoleap যা আপনারা আপনাদের ফোনের প্লে স্টোরে পেয়ে যাবেন সেখান থেকে অ্যাপটি ইন্সটল করে নিবেন। তো এই Photoleap অ্যাপটি দিয়ে আপনি মাত্র এক ক্লিক আনলিমিটেড ফটো এডিটিং করতে পারবেন যে এডিটটা কম্পিউটার দিয়ে করতে গেলে ঘন্টার পর ঘন্টা সময় চলে যায়।

Photoleap অ্যাপটি আপনার ফোনে ইন্সটল করার পর অ্যাপসটি ওপেন করবেন তারপর কর্নারের লক্ষ্য করবেন Edit Photo লিখা আছে সেখানে ক্লিক করবেন তারপর আপনার গ্যালারি থেকে আপনি যেই ফটোটি এডিট করতে চাচ্ছেন সেটি সিলেট করে দিবেন তারপর Ai Backgrounds লিখা আছে সেখানে ক্লিক করে দেবেন তাহলেই আপনার ছবিটির ব্যাকগ্রাউন্ড চেঞ্জ হয়ে যাবে।

মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট

এখন আপনাদের এমন একটি app শেয়ার করবে যে অ্যাপটি দিয়ে আপনার যে কোন ধরনের নরমাল ফটো মাত্র এক ক্লিকে এডিট করে ফেলতে পারবেন। মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট করা কিংবা ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড চেঞ্জ করা কিংবা বিভিন্ন পোস্টার এডিটিং করা অ্যাপসটির নাম হচ্ছে Piccutout app যা আপনারা ফ্রিতে প্লে স্টোরে পেয়ে যাবেন এবং সেখান থেকে ইন্সটল করে এডিটিং শুরু করতে পারেন।

মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট করার Piccutout app এর সুবিধাঃ
  • প্রথমে রয়েছে আপনারা চাইলে আপনার নরমাল একটি ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড মাত্র এক ক্লিকে রিমুভ করে ফেলতে পারবেন। 
  • আপনি যদি ফেসবুকে বিভিন্ন প্রোডাক্টের বিজনেস করে থাকেন আপনি চাইলে আপনার প্রোডাক্টের পোস্টার মাত্র এক ক্লিকে এডিট করে ফেলতে পারবেন। 
  • আপনি যেকোন ধরনের সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্ট মাত্র এক ক্লিকে কিন্তু এডিট করে ফেলতে পারবেন এছাড়া এই Piccutout অ্যাপটিতে এডিট করার আরও অনেক সুবিধা রয়েছে।

ছবি এডিট করার apps

আপনার মোবাইল ফোনে হয়তো সেরা ক্যামেরাটি রয়েছে তারপরও আপনি সবচেয়ে দারুন ছবিটি তুলতে পারছেন না। ওইদিকে আপনার বন্ধু কিংবা অন্য কেউ আপনার চাইতে কম দামে একটি স্মার্টফোন দিয়ে ছবি তোলে ফেসবুকে আপলোড দিলে পরেই ১-২ হাজার লাইক পড়ে যায় কিভাবে পড়ে যায়? কি করে এত সুন্দর হয় কারন যে ছবিটি তোলার পরে একটু এডিট করে নেয়।
তাই আপনাদের যাদের ভালো ফোন রয়েছে কিংবা খারাপ মোবাইল রয়েছে ক্যামেরা অতটা ভালো না তারা চাইলে আপনার ফটোটাকে আরো উজ্জ্বল এবং সুন্দর করতে চাইলে নিচে দেওয়া সেরা ৫টি ছবি এডিট করার apps এর নাম উল্লেখ করলাম যেগুলো দিয়ে ছবি এডিট করলে আপনার ছবিটি দেখতে অসাধারণ লাগবে। চলুন তাহলে ছবি এডিট করার apps এর নাম গুলি জেনে নেওয়া যাক।

১। Photo Room: এই অ্যাপসটির মেইন কাজটাই হলো ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করা। আমরা অনেকেই চাই আমার ছবির ব্যাকগ্রাউন্ডটাকে রিমুভ করে নতুন কিছু সেখানে অ্যাড করবো অথবা আমার ব্যাকগ্রাউন্ডটা একটু ঘোলা হয়ে যাবে অর্থাৎ ডিএসএলআর ক্যামেরার মত একটা লুক দিবে আর তাদের জন্য বেস্ট হবে এই ছবি এডিট করার Photo Room অ্যাপসটি।

২। Photoshop Lightroom: এই অ্যাপসটি মানে সুপার লেভেলের জনপ্রিয় শুধু এন্ড্রয়েডের জন্য না অনেকেই কম্পিউটারের ফটো এডিটিং এর জন্য এটা ব্যবহার করে থাকে বিশেষ করে যারা ফটো নিয়ে কাজ করে। আপনি যদি ছবি কালারফুল এডিট করতে চান তাহলে এই অ্যাপের বিকল্প আর কিছু নেই এবং সবচেয়ে বড় ব্যাপার হলো এই অ্যাপটি ছবির কোয়ালিটি একদম ভাবে ধরে রাখতে পারে।

৩। Picsart: এমন একটি অ্যাপস যেখানে আপনি সকল ধরনের এডিটিং অপশন পেয়ে যাবেন। Picsart অ্যাপসটিতে প্রফেশনাল ভাবে আপনি চাইলে কাজ করতে পারেন এবং ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ থেকে শুরু করে যতপ্রকার এডিটিং রয়েছে সব এই অ্যাপসটিতে ফ্রিতে করতে পারবেন।

৪। ToolWiz Photos: এই অ্যাপসটাও কিছুটা Picsart অ্যাপসই মতো বা Picsart অ্যাপের চাইতেও বেশি সংখ্যক হয়তো আপনি বিভিন্ন রকমের ফিউচার পেয়ে যাবেন যা আপনার ছবিকে গড়ে তুলবে রং সঙ্গে খুবই উজ্জ্বল এবং ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ ফিউচার তো থাকবেই।

৫। Pixellab: এই অ্যাপসটিও খুবই জনপ্রিয় যারা ফেসবুক, ইউটিউবের জন্য ব্যানার তৈরি করেন কিংবা ছবির ভিতরে কোন কিছু লিখতে চান তাদের জন্য বেস্ট হবে Pixellab অ্যাপসটি। এটি ব্যবহার করে আপনারা প্রফেশনাল ভাবে ছবির উপর অংকন এবং লিখতে পারবেন।

৬। Ai Expand: এই অ্যাপসটি দিয়ে আপনারা ছবির সাইজ সঠিক মাপে কাটতে পারবেন এবং আপনি কোন প্লাটফর্মে ছবিটি এডিট করে আপলোড করবেন সেই প্ল্যাটফর্ম অনুযায়ী ছবিটি নির্ধারিত সাইজ অনুযায়ী কাটতে পারবেন এছাড়া অন্যান্য ফিউচার রয়েছে।

৭। SkyPic: এই অ্যাপটি দিয়ে আপনারা চাইলে খুব সহজেই ফ্রিতে আপনার ছবির আকাশ চেঞ্জ করতে পারবেন যেকোনো রং পরিবর্তন করতে পারবেন এবং ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড খুব সহজেই চেঞ্জ করতে পারবেন।

ছবি এডিট করার সফটওয়্যার ডাউনলোড

তো প্রিয় পাঠক আমরা প্রত্যেকই ছবি এডিটিং করতে ভালবাসি এবং একটি ছবি এডিট করতে কিন্তু অনেকটা সময় লেগে যায় ৩০ মিনিট ১ ঘন্টা বা এর বেশিও কিন্তু সময় লেগে যায় তারপরে কিন্তু ছবিটি এডিট করার পর পছন্দ হয় না। কিন্তু আজকে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের এমন বেশ কয়েকটি অ্যাপস এর নাম জানাবো। 

যে অ্যাপসের মাধ্যমে আপনি যে কোন ছবিকে এতটাই পরিমাণ সুন্দর করে এডিট করতে পারবেন যে ছবি দেখার পর যে কেউ অবাক হয়ে যাবে এবং এই ছবি যখন আপনি ফেসবুক বা অন্যান্য মিডিয়াতে পোস্ট করবেন তখন দেখবেন যে সবাই দেখে অবাক হয়ে যাবে সবাই আপনাকে বলবে যে আপনি ফটো এডিটিং এর মাস্টার। চলুন তাহলে ছবি এডিট করার সফটওয়্যার গুলির নাম জেনে নেওয়া যাক।
  • Remini
  • AirBrush
  • GIMP
  • Photopea
  • Bazaart

ছবি এডিট করার ব্যাকগ্রাউন্ড apps download

বন্ধুরা এখন আপনাদের জানাবো বিশ্বের সবচাইতে সেরা ২টা ছবি এডিট অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে। আপনি যদি কখনো বা কোনদিন ছবি এডিটিং করেন নাই আপনিও কিন্তু প্রফেশনাল ভাবে খুব সহজে ফটো এডিট করে নিতে পারবেন। চলুন তাহলে ছবি এডিট করার ব্যাকগ্রাউন্ড apps গুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।
  • 3DLUT mobile: এই অ্যাপটি আপনারা প্লে স্টোরে পেয়ে যাবেন। এই 3DLUT মোবাইল অ্যাপটি ১০ মিলিয়নেরও বেশি ডাউনলোড হয়েছে। এই অ্যাপটির মধ্যে ব্যাকগ্রাউন্ড চেঞ্জ করার অনেক অপশন রয়েছে।
  • AICut Photo Background: এই অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপসটি প্লে স্টোরে ৪.৬ রেটিং এবং ডাউনলোড হয়েছে প্রায় এক লাখেরও বেশি তাই যারা নির্দিষ্ট ছবির ব্যাকগ্রাউন্ডের কালার রং চেঞ্জ করতে চান নিজের পছন্দ অনুযায়ী তাদের জন্য বেস্ট হবে এই অ্যাপটি তাছাড়া এই অ্যাপটিতে অনেক ব্যাকগ্রাউন্ড এডিটের ফিউচার রয়েছে।

এডিট করা সফটওয়্যার

আমাদের অনেকেরই ভালো মোবাইল নাই যার কারণে ভালো ছবি তুলতে পারি না কিন্তু আপনি চাইলে আপনার কাছে যে ফোনটি রয়েছে সেটি দিয়ে ভালো ছবি তুলতে পারেন কি করে আপনি ছবি তোলার পর সেটিকে ভালো অ্যাপ দিয়ে যদি ছবিটাকে এডিটিং করেন এবং ব্যাকগ্রাউন্ড চেঞ্জ করেন তাহলে আপনার ছবিটি দেখতে অনেক সুন্দর লাগবে মনে হবে ভালো মোবাইল দিয়ে তোলা।

আপনাদের জন্য নিচে বেশ কয়েকটি এডিট করা সফটওয়্যার এর নাম উল্লেখ করলাম যেগুলো ব্যবহার করে আপনি ব্যাকগ্রাউন্ড চেঞ্জ এবং আপনার ছবিকে খুব সহজেই এডিট করতে পারবেন।
  • Cutout Pro
  • PhotoDirector
  • YouCam Perfect
  • Vivid AI
  • Google Photos
  • Canva
  • Facetune

ভালো এডিট করার সফটওয়্যার

ভালো ছবি তোলার জন্য প্রথমে যেটি প্রয়োজন সেটি হচ্ছে আপনার একটি ভালো মোবাইল ফোন আর যদি সেটাও না থাকে তাহলে আপনার যেটি প্রয়োজন হবে ভালো একটি ফটো এডিট করার সফটওয়্যার।আপনার মোবাইলের ছবি যতই খারাপ হোক না কেন বর্তমান যুগে এমন এমন অ্যাপস রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করে খারাপ ছবিও ঝকঝকে করা যাচ্ছে।
ঝাপসা ছবি এডিট করার জন্য আপনার জন্য বেস্ট হবে Remini সফটওয়্যার এটি মোবাইল এবং ডেস্কটপ এর জন্য দুই ভার্সনে রয়েছে। এই অ্যাপসটিতে আপনারা খুব সহজেই ফ্রিতে আপনার ঝাপসা ছবিকে খুবই উজ্জ্বল করতে পারবেন এবং পিছনের ব্যাকগ্রাউন্ড গুলো কিছুটা রং পরিবর্তন করতে পারবেন। 

লেখকের শেষ কথা

প্রিয় পাঠক এই আর্টিকেল পর্বে ছবি এডিট করার ব্যাকগ্রাউন্ড apps এবং মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট সফটওয়্যার এবং নিয়ম সম্পর্কে জানিয়েছি, আশা করি আপনি সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়েছেন। আপনি যদি ছবি এডিট করতে ভালোবাসেন কিংবা আপনার ফোনের ক্যামেরা খারাপ হয়ে থাকে ভালো ছবি ওঠেনা তাহলে আপনি আর্টিকেলে জানানো এই অ্যাপস গুলি ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

আশা করি এই সফটওয়্যার গুলো ব্যবহার করলে আপনার ছবি খুবই উজ্জ্বল এবং পরিষ্কার দেখাবে পাশাপাশি আপনি যে কোন সিনারিতে অর্থাৎ ব্যাকগ্রাউন্ডে আপনার ছবিটাকে নিয়ে যে বসাতে পারবেন এবং কেউ বুঝতেই পারবে না যে আপনি ছবিটি এডিট করেছেন। আপনি যদি কোন কিছু না বুঝে থাকেন কিংবা কোন প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে নিচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

Edu 360 BD নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url